বরিশাল নিউজ ডেস্ক।। ক্রিকেট বিশ্বকাপের জমজমাট ম্যাচে মঙ্গলবার লর্ডসে শতরান করেন অ্যারন ফিঞ্চ। ইংল্যান্ডকে উড়িয়ে দেন অস্ট্রেলিয়ার দুই বাঁহাতি পেসার জেসন বেহরেনডর্ফ আর মিচেল স্টার্ক। দু’জনে মিলে ন’উইকেট ভাগ করে নেন তাঁরা।

শেষ হাসি অজিদেরই-আইসিসি

শেষ হাসি অজিদেরই-আইসিসি

টসে জিতে অস্ট্রেলিয়াকে ব্যাট করতে পাঠান এউইন মর্গান। আবহাওয়ার সুযোগ নিয়ে নতুন বলে জোফ্রা আর্চার আর ক্রিস ওকস দারুণ শুরু করলেও অস্ট্রেলিয় ব্যাটিংয়ে ছন্দপতন হয়নি। শুরুতে মন্থর গতির ডেভিড ওয়ার্নার আর অ্যারন ফিঞ্চ টুর্নামেন্টে এই তৃতীয়বার প্রথম উইকেট জুটিতে একশো রানের গণ্ডী পেরোন। অর্ধশতরান পেরিয়ে মঈন আলীর বলে ওয়ার্নার আউট হলেও শতরান করেন ফিঞ্চ, তাও মাত্র ১১৬ বলে। অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসে সেটা ৩৬তম ওভার। সেঞ্চুরি করে পরের বলে আর্চারকে হুক করতে যান ফিঞ্চ। বল তাঁর ব্যাটের ওপরের দিকে লেগে যায় ওকসের হাতে।

এরপর নিয়মিতভাবে উইকেট পেতে থাকে ইংল্যান্ড। চাপে পড়ে ভুল করে অস্ট্রেলিয়াও। বিশেষতঃ মার্কস স্টয়নিসের রান আউট নিয়ে কিছু না বলাই ভাল। সব সামলে ২৭ বলে ৩৮ করেন অ্যালেক্স কেরি। অস্ট্রেলিয়ার স্কোর দাঁড়ায় সাত উইকেটে ২৮৫।

ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই জেমস ভিন্সকে বোল্ড করে ইংল্যান্ডকে জবর ধাক্কা দেন বেহরেনডর্ফ। সেই শুরু। তারপর অবস্থার ক্রমশঃ অবনতি হতে থাকে। ফর্মে থাকা জো রুট এলবিডব্লিউ হন মিচেল স্টার্কের বলে। অল্প রানে ফিরে যান এউইন মর্গান আর জনি বেয়ারস্টো। ইংল্যান্ডের স্কোর তখন চার উইকেটে ৫৩। পঞ্চম উইকেট জুটিতে এরপর ৭১ রান যোগ করেন জস বাটলার আর বেন স্টোকস, কিন্তু সীমানার ধারে অনেকটা ছুটে চমৎকার ক্যাচ নিয়ে বাটলারকে ফেরান উসমান খোয়াজা। স্টোকস আর ওকস এরপর কিছুটা আশা যোগান লর্ডসের হাজার হাজার সমর্থকের মনে। টুর্নামেন্টে তৃতীয় অর্ধশতরানও করেন স্টোকস। কিন্তু স্টার্ক স্টোকসকে ইয়র্ক করার সঙ্গে সঙ্গে শেষ হয়ে যায় ইংল্যান্ডের লড়াই। চুয়াল্লিশ রানে পাঁচ উইকেট নেন বেহরেনডর্ফ। আইসিসি।।