বরিশাল নিউজ ডেস্ক।। ঘনিষ্ঠদের দাবি অনুযায়ী, এরশাদ তার নিজ বাসভবন ‘প্রেসিডেন্ট পার্ক’ সাবেক স্ত্রী বিদিশার ছেলে এরিক এরশাদকে দিয়েছেন। আর তার গুলশানের বাড়িটি দিয়ে গেছেন রওশন এরশাদকে
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে অসুস্থ হয়ে সিঙ্গাপুর যাওয়ার আগেই সাবেক এই রাষ্ট্রপতি দেশ-বিদেশে থাকা তার স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তি পরিবার ও স্বজনদের মধ্যে বণ্টন করে দিয়েছেন বলে জানা যায়।
এরশাদের পরিবারের ঘনিষ্ঠদের দাবি অনুযায়ী, এরশাদ তার পালকপুত্র রাহগির আল মাহি এরশাদ, বিদিশার পুত্র এরিক এরশাদ, পালক পুত্র আলম ও পালিতকন্যা আজরা জেবিন, পুরাতন ঢাকার রিপা কর্মকার এবং নারায়ণগঞ্জের অনন্যা হুসেইন মৌসুমির মধ্যে বেশিরভাগ সম্পতি ভাগ করে দিয়েছেন। এছাড়া তার সম্পত্তির কিছু অংশ দলের ফান্ড ও এতিমদের ট্রাস্ট্রে দেওয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তারা।
ঘনিষ্ঠদের দাবি অনুযায়ী, এরশাদ তার নিজ বাসভবন ‘প্রেসিডেন্ট পার্ক’ সাবেক স্ত্রী বিদিশার ছেলে এরিক এরশাদকে দিয়েছেন। আর তার গুলশানের বাড়িটি দিয়ে গেছেন রওশন এরশাদকে। জন্মস্থান রংপুরের সম্পত্তি আপন ভাই জিএম কাদের ও ভাতিজা আতিক শাহরিয়ারকে দেওয়া হয়েছে।
এছাড়া রাজধানীর কাকরাইলে জাতীয় পার্টির প্রধান কার্যালয় ও রংপুরের জাতীয় পার্টি অফিস এরশাদের নিজস্ব সম্পত্তি। দু’টি সম্পত্তিই দলকে দান করেছেন তিনি।
জাতীয় পার্টির কয়েকজন নেতা জানান, এরশাদের গুলশান বনানী এলাকায় বিভিন্ন মার্কেটে দোকান রয়েছে। এগুলো সন্তান, ভাই, ভাতিজা ও পালিত ছেলে-মেয়েদের মধ্যে ভাগ করে দেওয়া হয়েছে।