আটক আব্দুল সহিদ হাওলাদার

আটক আব্দুল সহিদ হাওলাদার

বরিশাল নিউজ।। ভোলায় ”কল্লাকাটা” (ছেলেধরা) গুজব ছড়ানোর অভিযোগ এক যুবককে আটক করেছে চরফ্যাশন থানা পুলিশ। আজ বুধবার বিকালের দিকে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। আটককৃতের তথ্যের ভিত্তিতে আরো অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার।
বরিশাল নিউজের সংবাদদাতা জানাচ্ছেন, সারাদেশের মতো ভোলাতেও ”কল্লাকাটা” বা ছেলেধরা লোকজন বাচ্চাদের ধরে নিয়ে যাচ্ছে এবং তাদের মাথা কেটে নিয়ে যাচ্ছে এমন গুজব ছড়িয়ে পড়ে। এতে অভিভাবকদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। এমন গুজব ছড়ানোর পিছনে যারা কাজ করছে তাদেরকে আইনের আওতায় আনার জন্য তৎপর হয়ে ওঠে ভোলার পুলিশ প্রশাসন। তারই ধারাবাহিকতায় ১০ জুলাই ভোলা জেলা পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সারের নির্দেশে সহকারী পুলিশ সুপার চরফ্যাশন সার্কেলের তত্বাবধানে চরফ্যাশন থানার অফিসার ইনচার্জ এর নেতৃত্বে একটি টিম ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার চর মাদ্রাজ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় গুজব ছড়ানোর অভিযোগে আব্দুল সহিদ হাওলাদার (২৪) নামের এক যুবককে আটক করে। আটককৃত যুবক চরফ্যাশন থানার চর মাদ্রাজ ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর গ্রামের মো. আলী হাওলাদারের ছেলে। তাকে আটক করার পর সে বিভিন্ন প্রকার তথ্য দেয়।
আটককৃত আব্দুল সহিদ হাওলাদারের বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি তার ফেসবুক, মেসেঞ্জার ও যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন স্থানে মানুষের মাঝে গুজব ছড়িয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানোর প্রয়াস চালান। তাকে আটক করার পর তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে চরফ্যাশন থানার পুলিশের দুটি টিম উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান অব্যাহত রেখেছেন। তার সাথে যারা জড়িত তাদেরকে আটক করার পর আসামীদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের আওতায় মামলা দায়ের করা হবে বলে নিশ্চিত করেছেন জেলা পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার।

বরিশাল নিউজ/শরীফ