প্রতীকী ছবি।

পিরোজপুর নিউজ।। পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় শাহ আলম (৪৮) নামে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যার দায়ে ৭ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়াও প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়।
পিরোজপুরের জেলা ও দায়রা জজ মো. আব্দুল মান্নান সোমবার দুপুরে এ রায় দেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০০৯ সালের ২৬ জুলাই রাতে ফুলঝুড়ি গ্রামের এক বাড়িতে ডাকাত ঢোকার চিৎকার শুনে ওই গ্রামের মৃত সৈজউদ্দিন হাওলাদারের ছেলে শাহ আলম সেখানে ছুটে যান। তিনি ওই বাড়ির কাছে পৌঁছালে ডাকাতরা তাকে কুপিয়ে জখম করে। পরে স্থানীয় লোকজন শাহ আলমকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় মৃত শাহ আলমের ভাই আকরামুল ইসলাম বাদী হয়ে অজ্ঞাত ডাকাতদের আসামি করে হত্যা মামলা করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আটজনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেন। এরপর দীর্ঘ শুনানি শেষে বিচারক মো. আব্দুল মান্নান এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- মঠবাড়িয়া উপজেলার আঙ্গুলকাটা গ্রামের আলম মোল্লা (৩৪), বাদুর গ্রামের শাহাদাৎ হোসেন (৩৪), পাঠাকাট গ্রামের ইদ্রিস (৩৯) ও ইলিয়াস (৩৪), বকসির ঘটিচোরা গ্রামের দোলোয়ার (২৯), ধানীসাফা গ্রামের আব্দুর রহিম (৩৪) ও সাফা গ্রামের বাচ্চ (৩৪)। এদের মধ্যে ইদ্রিস হাওলাদার ও বাচ্চু তালুকদার পলাতক রয়েছেন। আসামি মোস্তফা মারা গেছেন। বাকি আসামিরা রায় ঘোষণার সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন।