গ্রেপ্তার-প্রতীকী ছবি

বরিশাল নিউজ।। বরিশাল নগরীর আমানতগঞ্জ কশাই বাড়িপুল এলাকায় সোমবার ছুরিকাঘাতে নিহত রুহুল আমিনের ঘাতক সুমনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
পটুয়াখালী থেকে মঙ্গলবার দুপুরে কোতয়ালী মডেল থানার এসি মোঃ রাসেল ও ওসি তদন্ত আসাদুজ্জামান সহ একদল সদস্য সুমনকে আটক করে।

নিহত রুহুল আমিন ভোলা সদর উপজেলার দিঘলদী এলাকার মোহাম্মদ আলীর ছেলে ও নগরীর উত্তর আমানতগঞ্জ এলাকার বাসিন্দা শফিউল ইসলামের মেয়ে জামাই। রুহুল আমিন শ্বশুর বাড়িতে থেকে নগরীর বাজার রোডের একটি দোকানে কাজ করতেন।

অভিযুক্ত সুমন ওরফে লাইলী সুমন আমনতগঞ্জ ইসলামিয়া কলেজ সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা । তিনি পেশায় প্রাইভেটকার চালক। হত্যাকান্ড ঘটনার পর পরই এলাকা থেকে পালিয়ে যায়।

নিহত রুহুল আমিন ও সুমনের ঘনিষ্ঠজনরা জানান, তারা দুইজন একসাথে চলাফেরা করত। তারা মোবাইলে লুডু খেলার মাধ্যমে জুয়া খেলত। জুয়ার টাকা পাওনা নিয়ে বিরোধের জেরেই এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পুলিশও জানয়েছিলেন, জুয়া খেলার টাকা নিয়ে দ্বন্ধের কথা শোনা যাচ্ছে। তবে অন্য কোনো কারণেও এই হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে। পাশাপাশি এ ঘটনায় নিহতের বাবা মোহাম্মদ আলী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন বলেও জানা গেছে।
বরিশাল নিউজ/স্টাফ রিপোর্টার