পেয়ারা ও আমরার ভাসমানহাট পরিদর্শন করেছেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক।

ঝালকাঠি নিউজ।। ঐতিহ্যবাহী পেয়ারা ও আমরার বৃহত্তর ভাসমানহাট পরিদর্শন করেছেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক। তিনি বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় সদর উপজেলার ভীমরুলী গ্রামের খালে পেয়ারার ভাসমানহাটে এসে পৌঁছান। এসময় তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান ঝালকাঠির জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী ও পুলিশ সুপার ফাতিহা ইয়াসমিন।

প্রতিমন্ত্রী গ্রামের খালের ভাসমান পেয়ারারহাটে নৌ-ভ্রমন করেন। পরে তিনি নৌকায় চড়ে স্থানীয় পেয়ারা, আমরা ও সবজি চাষিদের সঙ্গে মিশে যান। তিনি চাষীদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। খালের দুই তীরে শত শত মানুষ দাঁড়িতে থেকে তা উপভোগ করেন। ভাসমান হাট পরিদর্শন শেষে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন। এসময় তিনি ভাসমানহাটের প্রশংসা করেন।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বলেছেন, বর্তমান সরকার কৃষি এবং কৃষক বান্ধব সরকার। ১০ বছরে প্রধানমন্ত্রী কৃষি উন্নয়নে অনেকগুলো উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। যার জন্য বাংলাদেশ এখন ফুলে, ফলে ও ফসলে সারা বিশ্বের কাছে সমৃদ্ধশালী শষ্য শ্যামল সুন্দর বাংলাদেশ হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছি। পেয়ারা ও আমরার ভাসমান বাজার ঘুরে দেখে মনে হলো এখানকার যোগাযোগ ব্যবস্থার অনেক উন্নয়ন হয়েছে।

এখানকার কৃষকরা ফসলের দামের ওপর নির্ভর করে চলে। তাই কৃষক যেন প্রকৃত দাম পায় সেজন্য আইসিটি মন্ত্রণালয় ই-কমার্স প্লাটফর্ম তৈরি করে দিবে। এছাড়াও এক শপ, এক সেবা প্রকল্পের মাধ্যমে এখানকার পণ্যগুলো বিদেশে অনলাইনে ন্যায্যমূল্যে বিক্রি করার ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে। পাশাপাশি কীত্তিপাশা ইউনিয়নে হাইস্পিড অপটিক্যাল কেবল বর্তমান সরকার পৌঁছে দিয়েছে। এই ভাসমান বাজারে অল্প সময়ের মধ্যে একটি ফ্রি ওয়াইফাই হটস্পট করে দেবো। যাতে এখানকার কৃষক, ক্রেতা-বিক্রেতা, স্থানীয় শিক্ষক, ছাত্র ও জনপ্রতিনিধিরা ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারেন।
বরিশাল নিউজ/সবুর