লবন নিয়ে সারা বেলা


বরিশাল নিউজ।। বরিশালে লবনের দাম বাড়ছে শুনে ক্রেতারা লবন কিনতে ছুটেছেন দোকানে দোকানে। কেউ কেউ ৪/৫ কেজি করেও লবন কিনেছেন। তাই বরিশালের বিভিন্ন বাজারে অন্যান্য দিনের থেকে লবন বিক্রির পরিমান বেশ কিছুটা বেড়েছে। পাইকার বাজারে দাম বাড়ার কোন খবর পাওয়া না গেলেও খুচরা বাজারসহ পাড়া মহল্লায় দাম বেড়েছে কেজিতে ১০ টাকা পর্যন্ত। অনেক দোকানের লবন ফুরিয়ে গেছে।

বোধ নেই বাঙ্গালীর

রিক্সায় যাচ্ছিলাম জেলা প্রশাসকের অফিসে, প্রেস কনফারেন্সে। বিষয় লবন। ক্যামেরা পারসনের সাথে সেই বিষয়ে আলাপ করছিলাম। লবন শুনেই রিক্সাওয়ালা বললেন,আপা বাঙ্গালীর কি বোধ হইবে না? বোধের কী অভাব দেখলেন ,জানতে চাইলাম আমি। বললেন,” লবনতো আমাগো দ্যাশেই হয়। পাশের জেলা ঝালকাঠি লবনের কারখানা। হারাডা দিন হেই লবন কেনার হিরিক যদি দ্যাখতেন।” তিনি আরও জানালেন,বটতলা বাজারের এক দোকানদারের এক বস্তা লবন কিছু দিন ধরে পড়ে ছিল। আজ দোকান খোলার একঘন্টার মধ্যেই সব লবন বিক্রি হয়ে গেছে।

১০ টাকাই লস

নগরীর হেমায়েত উদ্দিন সড়ক। দুই পথচারী আলাপ করছিলেন লবন নিয়ে। একজন অপরজনের কাছে জানতে চাইলেন লবনের কেজি ৩২ নাকি ৩৫ টাকা। অপরজন বললেন,৩৫ ছিল,৪৫ টাকায় বিক্রি হয়েছে। আগের জন বললেন ,ওই ১০ টাকাই লস।

পিডাইয়া হালাগো ‘-‘ লাল কইররা দেওয়া উচিৎ

পেঁয়াজ,চাল,এলপিজি গ্যাসের দাম বাড়ানোর জন্য সরকারকে দুষ ছিলেন যারা, এবার সেই ক্রেতারা ব্যবসায়ীদের উপর প্রচন্ড ক্ষুব্ধ হন। লবন নিয়ে গুজব রুখতে প্রশাসনের মাইকিং এর উদ্যোগ কাজে লাগে। বিকালের মধ্যেই লবনের দাম বৃদ্ধি যে স্রেফ গুজব তাও ছড়িয়ে পড়ে। ক্ষুব্ধ এক ক্রেতা বললেন, “পিডাইয়া হালাগো ‘-‘ লাল কইররা দেওয়া উচিৎ”।

অভিযোগ পেয়ে দোকানে কর্মকর্তা

বরিশাল নগরীর কাঠের পোল এলাকার বাসিন্দা বেলায়েত হাসান জানান, তিনি হাসপাতাল রোডের গৌরনদী স্টোর থেকে প্যাকেটে লেখা ২০ টাকার লবন ২৫ টাকায় ক্রয় করেছেন। এর কিছুক্ষণ পর একই দোকান থেকে একই লবন তার শ্যালিকা ৩০ টাকায় কেনেন। বিষয়টি সাথে সাথে মোবাইলে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরকে জানান তিনি। তারা সাথে সাথে ঘটনাস্থলে এসে দোকানিকে তিন হাজার টাকা জরিমানা করেন সহকারী পরিচালক মোঃ শাহ শোয়াইব মিয়া ।


এসিআই,মোল্লা সল্টের এসআরদের ফোন বন্ধ

বাংলাবাজার, বড়বাজারে কোন লবন কোম্পানির মার্কেটিং এর লোক আসেনি বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।
সংবাদ সম্মেলনে ব্যবসায়ীরা জানান, সকালেই তাদের লবন শেষ হয়ে গেলে অর্ডারের জন্য ফোন করে পাওয়া যায়নি এসিআই,মোল্লা সল্টের এসআরদের । তারা ফোন বন্ধ করে রেখেছেন। এতে করে ব্যবসায়ীরা মঙ্গলবার লবনের অর্ডার দিতে না পারায় বুধবার লবন বিক্রি করতে পারবেন না। পুলিশ তাদের মোবাইল নম্বর নিয়েছেন ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে।

পুলিশের ফেসবুক আইডিতে লবন

লবণ নিয়ে গুজবে কান না দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচারণা শুরু করেছে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ (বিএমপি)
বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে ফেসবুকে বরিশাল নগরের বাসিন্দাদের লবণ সংক্রান্ত গুজবে কান না দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে।
এছাড়াও গুজব প্রতিরোধে সহায়তা করার আহ্বান জানিয়ে বিএমপি পুলিশের পক্ষ থেকে কন্ট্রোল রুমের দুটি নম্বর দেওয়া হয়। নম্বর +০৪৩১-২১৭৬১৭৬ ও ০১৭৬৯৬৯০১২১ ।

বিশেষ সংবাদ সম্মেলন

লবণ নিয়ে গুজব বিষয়ে বরিশালের জেলা প্রশাসন বিশেষ সংবাদ সম্মেলনের ডাকে সন্ধ্যায়। জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে সেই সংবাদ সম্মেলনে বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসক উপস্থিত ছিলেন।

লবণ ক্রেতার অর্থদণ্ড

গুজবে কান দিয়ে প্রয়োজনের অতিরিক্ত লবণ কেনায় পটুয়াখালীতে দুই জনকে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহবুবর রহমান।
মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) বিকালে শহরের নিউমার্কেট এলাকায় জেলা পুলিশের সহায়তায় ওই অভিযান পরিচালনা করা হয়।
বরিশাল নিউজ/স্টাফ রিপোর্টার