বরিশাল নিউজ।। পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় ঈদের বিশেষ ভিজিএফের ৫৮০ কেজি চাল আত্মসাতের অভিযোগে পাঁচ জনের বিরুদ্ধে কলাপাড়া থানায় মামলা হয়েছে। বুধবার রাতে কলাপাড়া উপজেলা প্রকল্প বাসত্মবায়ন কর্মকর্তা তপন কুমার ঘোষ এ মামলা দায়ের করেন। মামলায় চাকামইয়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. হুমায়ন কবির কেরামত ও সহযোগী জামাল হাওলাদারকে রাতেই পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। মামলার অপর আসামীরা হলেন ইউপি সদস্য জাকির মৃধা, জলিল চাহর ও গিয়াস মাতুব্বর।

কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মুনিবুর রহমান বরিশাল নিউজকে জানান, বুধবার দুপুরে ভিজিএফের চাল আত্মসাতের অভিযোগ পেয়ে পশ্চিম চাকামইয়া গ্রামের জালাল চাকরের বাসায় অভিযান চালায়। এ অভিযানের খবর পেয়ে জালাল চাকর একাধিক চালের বস্তা কেটে তা বাড়ির পুকুরে ফেলে দেয়।
ইউএনও’র উপস্থিতিতে স্থানীয়রা পুকুরে ডুবিয়ে ছয়টি চাউলের বস্তা ও ১০ টি খালি বস্তা উদ্ধার করে। এ সময় চাল আত্মসাতের অভিযোগে জামাল নামে একজনকে আটক করে।

একই সময়ে পশ্চিম চাকামইয়া স্কুল সংলগ্ন থেকে একটি দোকানে পুলিশের উপস্থিতিতে তালা ভেঙ্গে ৩০ কেজি করে ১৩ বস্তা ভিজিএফের চাল উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চাকামইয়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. হুমায়ন কবির কেরামতকে আটক করা হয়। কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ছাড়াও উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) অনুপ দাস, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা তপন কুমার ঘোষ এ অভিযানে নেতৃত্ব দেন।

কলাপাড়া থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম জানান, মামলা দায়েরের পরই ইউপি চেয়ারম্যানসহ দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অপর আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। বৃহস্পতিবার সকালে গ্রেপ্তার হওয়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. হুমায়ন কবির কেরামত ও জামাল হাওলাদারকে জেল হাজতে প্রেরণ করা্‌ হয়েছে।

এরমধ্যে ইউপি চেয়ারম্যান মো. হুমায়ন কবির কেরামতকে গ্রেপ্তার করার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে ইউনিয়নে কয়েকশ নারী-পুরুষ। বৃহস্পতিবার বিকালে পৌর শহরের শহীদ সুরেন্দ্র মোহন চেীধুরী সড়ক সংলগ্ন প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন হয়।

বরিশাল নিউজ/মিলন