অশ্বিনী কুমার হলের সামনে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের মানববন্ধন-বরিশাল নিউজ

বরিশাল নিউজ ডেস্ক।। বুয়েটের ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে মঙ্গলবার সকাল থেকেই শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করছেন।বরিশালে বুয়েট ছাত্র আবরার হত্যার বিচার দাবিতে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট এর বিক্ষোভ মঙ্গলবার সকাল ১০টায় অশ্বিনী কুমার হলের সামনে মানববন্ধন করে।
সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ছাত্র ফ্রন্ট বরিশাল জেলার সভাপতি সন্তু মিত্র । পরিচালনা করেন সাংগঠনিক সম্পাদক নীলিমা জাহান। বক্তব্য রাখেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট বরিশাল জেলার সাধারন সম্পাদক মোজাম্মেল হক সাগর, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় শাখার আহবায়ক হাসিবুল ইসলাম, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সদস্য ইমাম হাসান, তরিকুল ইসলাম ইশাত, মাহবুবুর রহমান, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট বি এম কলেজ শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজুর রহমান রাকিব প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, আবরার শুধুমাত্র নতজানু পররাষ্ট্রনীতি নিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ার কারণে ছাত্রলীগের হাতে নিজের ক্যাম্পাসে খুন হল। বুয়েটের মত প্রতিষ্ঠান এ এই হত্যার ঘটনা সারাদেশে শিক্ষাঙ্গনের সন্ত্রাস-দখলদারিত্বের চিত্রকেই ফুটিয়ে তুলেছে। বক্তারা অবিলম্বে আবরার হত্যার বিচার দাবী করেন ও ছাত্রদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ বুয়েটের ভিসি-প্রভোস্ট এর পদত্যাগ দাবি করেন।

বিএম কলেজ সাধারণ শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ-বরিশাল নিউজ

বিএম কলেজ শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ

এদিকে আবরার ফাহাদের হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে শিক্ষার্থীরা বিএম কলেজ সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা শহীদ মিনার চত্বর থেকে ে বিক্ষোভ মিছিল করে বিএম কলেজ ক্যাম্পাস চত্বর ও নতুন বাজার- নথুল্লাবাদ সড়কে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করেন।

সাধারন শিক্ষার্থী রনি খন্দকারের সভাপতিত্বে মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন রাহুল দাস, ফয়সাল আহমেদ,রেজাউল করীম,আবু বক্কর সিদ্দিক,জাহাঙ্গীর আলম জামাল,নজরুল ইসলাম, তামিম সহ বিভিন্ন শিক্ষার্থীরা বক্তব্য রাখেন।

এছাড়া বিক্ষোভকারী সাধারন শিক্ষার্থীরা আবরার ফাহাদের হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও বিচার না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে বলে জানান।
কর্মসূচির অংশ হিসাবে আগামীকাল বুধবার মোমবাতি প্রজ্জলন ও মশাল মিছিল করার ঘোষণা দেন তারা।

এছাড়া জোহরবাদ বিএম কলেজ মসজিদে শিক্ষার্থীরা আবরার ফাহাদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে গায়েবী জানাযার নামাজ আদায় করেন।

বরিশালের বাইরে বিক্ষোভ

ঢাকা ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস সহ দেশের অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করছেন শিক্ষার্থীরা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভকারীরা একটি গায়েবানা জানাজারও আয়োজন করেন।
ময়মনসিংহেও ছাত্ররা মানববন্ধন করেছে বলে জানা যাচ্ছে।
আবরারের বাড়ি কুষ্টিয়ার যে গ্রামে সেখানে বিক্ষোভ দেখিয়েছে গ্রামবাসীরা।
বুয়েট ক্যাম্পাসে আবরারের হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে সোমবার থেকে টানা বিক্ষোভ চলছে । আবরার ফাহাদের হত্যাকাণ্ডকে কেন্দ্র করে বুয়েট শিক্ষার্থীদের এই আন্দোলনের সাথে সংহতি জানিয়েছে বুয়েটের শিক্ষক সমিতি। বুয়েটের সাবেক শিক্ষার্থীরাও সেখানে আজ মানববন্ধন করেছেন।

আবরার ফাহাদ

বুয়েট শিক্ষার্থীদের দাবি

অভিযুক্ত ছাত্রদের ৭২ ঘন্টার মধ্যে আজীবন বহিষ্কার নিশ্চিত করতে হবে।
শেরেবাংলা হলের প্রভোস্টকে ১১ নভেম্বর বিকাল ৫ টার মধ্যে প্রত্যাহার করতে হবে।
আবরারের পরিবারের সকল ক্ষতিপূরণ ও মামলার খরচ বুয়েটকে বহন করতে হবে।
হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।
মামলা দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে স্বল্প সময়ের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে হবে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি কেন ৩০ ঘণ্টা অতিবাহিত হবার পরও ঘটনাস্থলে উপস্থিত হননি তা তাকে সশরীরে ক্যাম্পাসে এসে বিকাল ৫ টার মধ্যে জবাবদিহি করতে হবে।
আবাসিক হলগুলোতে র‍্যাগের নামে এবং ভিন্ন মতাবলম্বীদের উপর সকল প্রকার শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতন বন্ধে প্রশাসনকে জড়িত সকলের ছাত্রত্ব বাতিল করতে হবে বলে দাবি ওঠে বুয়েটের বিক্ষোভ থেকে।

একই সাথে আহসানউল্লাহ হল এবং সোহরাওয়ার্দী হলের পূর্বের ঘটনাগুলোতে জড়িত সকলের ছাত্রত্ব বাতিল ১১ নভেম্বর,২০১৯ তারিখ বিকাল ৫ টার মধ্যে নিশ্চিত করতে হবে। ঢাকা ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস সহ দেশের অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিক্ষোভ

বাংলা আবরার হত্যা : ছাত্রলীগের ১০ জন রিমান্ডে

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদকে (২১) পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ছাত্রলীগের ১০ নেতার পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার তাদের ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। এ সময় চকবাজার থানায় করা মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম সাদবীর ইয়াসির আহসান চৌধুরী এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

যাদের রিমান্ড হলো- বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদি হাসান রাসেল, সহ-সভাপতি মুস্তাকিম ফুয়াদ, সহ-সম্পাদক আশিকুল ইসলাম বিটু, উপ-দফতর সম্পাদক মুজতবা রাফিদ, উপ-সমাজকল্যাণ সম্পাদক ইফতি মোশাররফ সকাল, উপ-আইন সম্পাদক অমিত সাহা, ক্রীড়া সম্পাদক সেফায়েতুল ইসলাম জিওন, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অনিক সরকার, গ্রন্থনা ও গবেষণা সম্পাদক ইশতিয়াক মুন্না এবং খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভির।


আগের দিন এসেছেন বাড়ী থেকে

কুষ্টিয়ার ছেলে আবরার ফাহাদ বুয়েটের ইলেকট্রিকাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।

রবিবার রাতে তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। তার আগের দিনই বাড়ি থেকে হলে এসেছিলেন পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে।

যে অবস্থায় আবরারকে উদ্ধার

বুয়েটের সাধারণ ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ফাহাদকে শেরেবাংলা হলের দ্বিতীয় তলা থেকে রবিবার (৬ অক্টোবর) মধ্যরাত অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যান। সোমবার (৭ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৬টার দিকে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সোমবার দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে মরদেহের ময়নাতদন্ত শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে ঢামেক ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগের প্রধান ডা. মো. সোহেল মাহমুদ বলেন, বাঁশ বা স্ট্যাম্প দিয়ে পেটানো হয়ে থাকতে পারে আবরারকে। এর ফলেই রক্তক্ষরণ বা পেইনের (ব্যথা) কারণে ফাহাদের মৃত্যু হয়েছে।

তিনি বলেন, ফাহাদের হাতে, পায়ে ও পিঠে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এ আঘাতের কারণেই তার মৃত্যু হয়েছে। আঘাতের ধরন দেখে মনে হয়েছে ভোঁতা কোনো জিনিস যেমন- বাঁশ বা স্ট্যাম্প দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। তবে তার মাথায় কোনো আঘাত নেই। কপালে ছোট একটি কাটা চিহ্ন রয়েছে।

এ ঘটনায় আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ বাদী হয়ে চকবাজার থানায় ১৯ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা করেন।