কাদেরকে দেখতে বিএসএমএমইউতে দেবী শেঠী

বরিশাল নিউজ ডেস্ক।। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) করোনারি ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে চিকিৎসাধীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে দেখতে বাংলাদেশে এসেছেন ভারতের প্রখ্যাত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ দেবী শেঠী।

সোমবার দুপুর দেড়টার দিকে তিনি বিএসএমএমইউতে এসে পৌঁছান। এর আগে তিনি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন।

এখন ওবায়দুল কা‌দে‌র‌কে দেখ‌ছেন দেবী‌ শেঠী। বিএসএমইউ এর হৃদরোগ বিভাগের অধ্যাপক ডা. এস এম মোস্তফা জামান এ তথ্য জানান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ইচ্ছায় ডা. মোস্তফা জামানই দেবী শেঠীর সঙ্গে যোগাযোগ করে বাংলাদেশে নিয়ে আসার ব্যবস্থা করেন।

ডা. জামান বলেন, গতকাল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওবায়দুল কাদেরকে দেখতে এসে জানতে পারেন তার শারীরিক অবস্থা ভালো নয়। এ অবস্থায় তাকে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে নেয়া সম্ভব নয়। তখন তিনি ভারতের দুজন হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. দেবী শেঠী ও ডা.শুভদত্তর নাম ধরে দুজনকে বাংলাদেশে এনে ওবায়দুল কাদেরকে দেখানোর ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশনা দেন।

তিনি জানান, দেবী শেঠীর ছেলে বরুন শেঠী তারই আমন্ত্রণে গত সপ্তাহে বিএসএমএমইউতে একটি সেমিনারে অংশগ্রহণ করতে এসেছিলেন। তার ছেলের মাধ্যমেই রোববার দিবাগত রাত ১টার সময় ডা. জামান দেবী শেঠীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলে প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছার কথা জানান এবং তাকে বাংলাদেশে আসার আমন্ত্রণ জানান। এতে দেবী শেঠী রাজি হন। তিনি সম্ভব হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ পাওয়ার ইচ্ছা পোষণ করেছেন।

ডা. জামান জানান, এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করলে ইতিবাচক সাড়া পেয়েছেন তিনি। এ কথা জানানোর পর তিনি নিশ্চিত ঢাকা আসছেন বলে জানান দেবী শেঠী।

শুভদত্তর কথা প্রধানমন্ত্রী বললেও তিনি কলকাতার বাইরে থাকায় তার সঙ্গে যোগাযোগই করা হয়নি বলে জানান ডা. জামান।

এদিকে ওবায়দুল কাদেরকে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে পাঠানোর সিদ্ধান্ত প্রায় চূড়ান্ত। আজ সোমবার দুপুরেই তাকে এয়ারঅ্যাম্বুলেন্স যোগে সিঙ্গাপুর পাঠানো হতে পারে।

রোববার (৩ মার্চ) ভোর ৬টায় নিজ বাসায় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে সকাল সাড়ে ৭টায় ওবায়দুল কাদেরকে বিএসএমএমইউতে নেয়া হয়। তাকে হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটের (সিসিইউ) আইসিইউতে রাখা হয়েছে।
-জাগো নিউজ ২৪