বরিশাল নিউজ ডেস্ক।। বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা (বিটিআরসি) ২৪৪টি ‘পর্নো সাইট’ বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে।

বিটিআরসির সিস্টেম অ্যান্ড সার্ভিস বিভাগ থেকে বুধবার সাইটগুলো বন্ধের নির্দেশ দেয়া হয়। দেশের সব ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়েকে এই নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে।

এর আগে দুপুরে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে স্ট্যাটাস দেন, ‘২৪৪টি পর্নো সাইট বন্ধ করেছি। অভিযান চলছে। চলবে।’

এরআগে গত বছর নভেম্বর মাসে দেশে সকল পর্নোগ্রাফি ওয়েবসাইট ছয় মাসের জন্য ব্লক করার নির্দেশ দিয়ছিল হাইকোর্ট।

পর্নোগ্রাফি বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে করা এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে অন্তর্বর্তীকালীন ওই আদেশ দেন হাইকোর্টের বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ ওই আদেশ দেন।

এ ছাড়াও পর্নোগ্রাফিযুক্ত সকল ওয়েবসাইট স্থায়ীভাবে কেন বন্ধের নির্দেশ দেয়া হবেনা, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে, ফেসবুক এবং সকল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করার জন্য ১৮ বছর বয়স নির্ধারণের জন্য জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর (আইডি) সংযুক্তি করার নির্দেশ কেন দেয়া হবে না এবং মোবাইল অপারেটরগুলোর পক্ষ থেকে ইন্টারনেটের স্বল্প মেয়াদি ইন্টারনেটের লোভনীয় অফার বন্ধে কেন নির্দেশনা দেয়া হবে না, রুলে তাও জানতে চেয়েছেন আদালত।
শুনানিকালে ‘মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন’র এক গবেষণা প্রতিবেদনে আদালতে তুলে ধরা হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশের রাজধানীতে ৭৭ শতাংশ স্কুলগামী শিক্ষার্থী পর্নোগ্রাফিতে আসক্ত হয়ে পড়েছে।
উল্লেখ্য ,ভারতে ৮৫৭টি পর্নো ওয়েবসাইট বন্ধ রাখা হয়েছে। ওই দেশের মোবাইল অপারেটরগুলোও পর্নো মুক্ত।