দুর্গাপুর হাজী মোবারক আলী দাখিল মাদ্রাসা- বরিশাল নিউজ

বরিশাল নিউজ।। বরিশাল সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) হুমায়ুন কবির মঙ্গলবার পরিদর্শনে গিয়েছিলেন চাঁদপুরা ইউনিয়নের দুর্গাপুর হাজী মোবারক আলী দাখিল মাদ্রাসায়।
তিনি মাদ্রাসাটির সব ক্লাস ঘুরে দেখেন শুধু দশম শ্রেণিতে ক্লাস হচ্ছে। সেখানে ছাত্র মাত্র দুইজন। অন্য কোন ক্লাসে ছাত্র নেই। আর ১৪ জন শিক্ষকের মধ্যে ১০ জন ছিলেন শিক্ষক রুমে।
অথচ ওই মাদ্রাসার ভর্তি রেজিস্ট্রারে প্রত্যেক শ্রেণিতে ২৫-৩০ জন শিক্ষার্থী দেখানো হয়েছে। মাদ্রাসার একটি কক্ষে বিগত কয়েক বছরের সরকারের দেয়া বই পড়ে থাকতে দেখে অবাক হন তিনি। কারন বই নেয়ার কোনো শিক্ষার্থী নেই মাদ্রাসাটিতে।

দুর্গাপুর হাজী মোবারক আলী দাখিল মাদ্রাসার সামনে ইউএনও।

ইউএনও হুমায়ুন কবির বলেন, সদর উপজেলার চাঁদপুরা ইউনিয়নে একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যুতে রাষ্ট্রীয় সালাম দিতে যাওয়ার সময় হাজী মোবারক আলী দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষাকার্যক্রম দেখার জন্য ঢুকে পড়ি। ইউএনও বলেন, হাজিরা খাতায় শিক্ষকদের স্বাক্ষর থাকলেও ফেব্রুয়ারি মাসে খাতায় কোনো শিক্ষার্থীর হাজিরা দেখা যায়নি।

মাদ্রাসাটি ১৯৮৫ সালে স্থাপিত হয় ও ১৯৮৬ সালে এমপিওভুক্ত হয়।

ইউএনও হুমায়ুন কবির জানান, বিষয়টি জেলা ও উপজেলা শিক্ষা অফিসারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে।

দুর্গাপুর হাজী মোবারক আলী দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষকরা অভিযোগের ব্যাপারে কোনো কথা বলতে রাজি হননি।