একুশে টেলিভিশনের (ইটিভি) প্রধান প্রতিবেদক এমএম সেকান্দার

বরিশাল নিউজ ডেস্ক।। এক নারী সহকর্মীর করা যৌন হয়রানির অভিযোগে বেসরকারি একুশে টেলিভিশনের (ইটিভি) প্রধান প্রতিবেদক এমএম সেকান্দারকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

র‌্যাব কর্মকর্তা পুলিশ সুপার মহিউদ্দিন ফারুকী বলেন, সেকেন্দারের এক নারী সহকর্মীর কাছ থেকে যৌন হয়রানির অভিযোগ তারা পান। এরপর সোমবার ভোরে তার বনশ্রীর বাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারের পর সাংবাদিক সেকেন্দারকে সোমবার হাতিরঝিল থানায় হস্তান্তর করার পর দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে তার বিরুদ্ধে মামলা করেরন অভযোগকারী নারী।

হাতিরঝিল থানার ওসি আবু মোহাম্মদ ফজলুল করিম বলেন, “গত ২৭ জানুয়ারি হাতিরঝিল এলাকায় গাড়ির মধ্যে যৌন হয়রানির চেষ্টা চালানোর অভিযোগ করে সেকন্দারের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন তার এক সহকর্মী।”

তিনি জানান, ওই নারী টেলিভিশনের শিক্ষানবীশ কর্মী। শারীরিক সম্পর্ক না করলে চাকরি স্থায়ী হবে না বলে সেকেন্দার প্রলোভন দিয়ে আসছিলেন।

পরে সাংবাদিক সেকেন্দারকে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ পাঁচদিনের রিমান্ডের আবেদন করে। অন্যদিকে তার জামিনের আবেদন করেন আইনজীবীরা।

শুনানি নিয়ে বিচারক হাকিম সত্যব্রত শিকদার তাকে দুই দিনের রিমান্ডে পাঠান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইটিভির যুগ্ম বার্তা সম্পাদক বুলবুল চৌধুরী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আমাদের এক নারী সহকর্মী যে অভিযোগ করেছেন তা সত্য বলে জেনেছি।

“দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে বলেই এই নারী সহকর্মী অফিসে লিখিত অভিযোগ দেন। অফিসের সিদ্ধান্তে এই মামলা করেন ছয় মাস আগে যোগ দেওয়া এই নারী সহকর্মী।”

তবে সেকেন্দারের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতনের এটাই প্রথম বলে জানান বুলবুল চৌধুরী।

ইটিভির সিইও মনজুরুল আহসান বুলবুল বলেন, “মামলা হয়েছে। আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে। এ ব্যাপার কিছু বলার নেই।”
-বিডিনিউজ২৪