শামীম আহমেদ,বরিশাল ।। পটুয়াখালী সদর থানার পাগলীর নবজাতক কন্যা ফাতেমা রহমানের ঠাঁই হয়েছে বরিশাল বিভাগীয় বেবী হোম জেলার আগৈলঝাড়ায়।
বেবী হোমে ফাতেমা রহমানকে আনুষ্ঠাকিভাবে হস্তান্তর করেছেন পটুয়াখালী জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের কর্মকর্তারা।
বেবী হোমের উপ-তত্ত্বাবধায়ক আবুল কালাম আজাদ নবজাতক ফাতেমা রহমানের জন্ম সম্পর্কে জানান, গত ১৪ জানুয়ারি পটুয়াখালী জেলা সদরের কমলাপুর এলাকায় প্রসব বেদনায় ছটফট করা মানসিক ভারসাম্যহীন অনত্মঃস্বত্ত্বা নারীকে সদর থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান মহানুভবতা দেখিয়ে নিজে পটুয়াখালী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন। ওইদিন সন্ধ্যায় প্রসূতি ওই পাগলী কন্যা সন্তান জন্ম দিয়ে হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যায়। অনেক খুঁজেও শিশুটির মাকে না পেয়ে অভিভাবকের দায়িত্ব নেন ওসি মোস্তাফিজুর রহমান।
হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে ২৭ জানুয়ারি শিশুটিকে পটুয়াখালী সমাজসেবা অধিদপ্তারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। পরিচয়হীন এই নবজাতকের পরিচয় নিয়ে জটিলতা দেখা দিলে ওসি তার মরহুম মায়ের নামানুসারে নবজাতক শিশুটির নাম রাখেন “ফাতেমা রহমান”।
পটুয়াখালী জেলা সমাসেবা কার্যালয়ের হিসাব সহকারী সিদ্দিকুর রহমান ও হাসপাতালের একজন নার্স বুধবার সন্ধ্যায় আনুষ্ঠানিকভাবে শিশু ফাতেমাকে আগৈলঝাড়ায় বিভাগীয় বেবী হোমে নবজাতক ফাতেমা রহমানকে হস্তান্তর করেছেন।
বেবী হোমের উপ-তত্ত্বাবধায়ক আবুল কালাম আজাদ আরও জানান, ফুটফুটে ফাতেমার অপুষ্টিজনিত সমস্যা থাকলেও বর্তমানে সে সুস্থ রয়েছে। শিশুটিকে কেউ দত্তক নিতে চাইলে সেক্ষেত্রে আদালতই উপযুক্ত অভিভাবক নির্ধারণ করবেন বলেও তিনি উল্লেখ করেন।
বরিশাল নিউজ/শামীম