ভোলা নিউজ।। ভোলায় মোটরসাইকেলের কাগজপত্র দেখানোকে কেন্দ্র করে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আওলাদ হোসেনকে মারধরের ঘটনায় ট্রাফিক পুলিশের এএসআই শাহে আলমকে ক্লোজ করা হয়েছে।

ভোলার পুলিশ সুপার সোমবার তাকে ক্লোজ করে ভোলা পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার করেন। তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।

ভুক্তভোগী আওলাদ হোসেন বোরহানউদ্দিন উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সম্পাদক। তিনি সোমবার রাতে জানান, রবিবার বিকেলে তিনি মোটরসাইকেল নিয়ে ভোলা শহরের বাংলা স্কুল মোড় পার হচ্ছিলেন। এ সময় ট্রাফিক পুলিশ তাকে থামিয়ে কাগজপত্র দেখাতে বলে। কাগজ দেখানোর পর তাকে ছেড়ে দেয় পুলিশ। ওই সময় ট্রাফিক পুলিশ অন্য একটি গাড়ি আটকায়। আওলাদ ওই গাড়ির ব্যাপারে কথা বলতে গেলে তার ওপর চড়াও হন ট্রফিক পুলিশের এএসআই শাহে আলম। এ সময় দু’জনের মধ্যে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে শাহে আলম তাকে মারধর করেন।
আওলাদ জানান, এ ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে ভোলার আদালতে মামলা দায়ের করবেন।