নৌকা ৫,ধানের শীষ ৩

বরিশাল নিউজ।। সংসদ আসন ১১৯ বরিশাল-১ ,গৌরনদী এবং আগৈলঝাড়া দুইটি উপজেলা নিয়ে গঠিত। স্বাধীনতার পর থেকে ১০টি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বরিশাল- ১ আসনে নৌকা পাঁচবার (১৯৭৩, ১৯৯১, ১৯৯৬, ২০০৮, ২০১৪), ধানের শীষ তিনবার (১৯৭৯, ১৯৯৬ ১২ ফেব্রুয়ারি , ২০০১, ) এবং জাতীয় পার্টি দুইবার ( ১৯৮৬, ১৯৮৮ ) বিজয়ী হয়। তবে ১৯৯১ সাল থেকে অনুষ্ঠিত পাচঁটি নির্বাচনের মধ্যে নৌকা চার বার বিজয়ী হয়েছে। অপরদিকে ধানের শীষ অংশ নেয়নি একটিতে আর বিজয়ী হয়েছে ১ বার।

বরিশাল-১: নৌকা ও ধানের শীষের প্রার্থী

২০০১ সালে ধানের শীষে এই বিজয় এনেছিলেন জহিরউদ্দিন স্বপন। কিন্তু সংস্কারপন্থি হওয়ায় ২০০৮ সালে দল তাকে মনোনয়ন দেয়নি। বিএনপি ওই নির্বাচনে মনোনয়ন দিয়েছিল গৌরনদী উপজেলা বিএনপি সভাপতি ইঞ্জিনিয়ন আবদুস সোবহানকে। তিনি নৌকা মার্কার নতুন প্রার্থী তালুকদার মো.ইউনুছের কাছে পরাজিত হন। ১০ বছর ধরে দলকে নেতৃত্বদানকারী সোবহান এবারও মনোনয়নপত্র কিনেছিলেন। কিন্তুদল তাকে মনোনয়ন দেয়নি ।
এবারের নৌকা মার্কার প্রার্থী আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ ১৯৯১,১৯৯৬ এবং ২১০৪ সালে বিজয়ী হন। ২০০৮ সালে নৌকায় নির্বাচন করে বিজয়ী হন তালুকদার মো.ইউনুস। ১৯৭৩ সালে নৌকায় বিজয়ী ছিলেন আবদুর রব সেরনিয়াবাত।
৫০৬ ভোট দিয়ে যাত্রা স্বপনের

সংস্কারপন্থি স্বপন গত ১০ বছর বিএনপির রাজনীতি থেকে দূরে ছিলেন। দলীয় বিরোধিতার মুখে এলাকায় পর্যন্ত যেতে পারেননি ।
২০০১ সালের পর স্বপন এবার আবার ধানের শীষের প্রার্থী। আর যারা তাকে এলাকায় অবাঞ্চিত করেছিলেন তারা এখন স্বপনের পাশে নেই । নেই এলাকাতেও ।
তুখোর ছাত্রনেতা স্বপন ১৯৯১ সালে ভোটের রাজনীতিতে অংশ নেন। সেবার তিনি গৌরনদী থেকে ওয়ার্কার্স পার্টির প্রার্থী হয়ে হাতুরি মার্কায় নির্বাচন করে ৫০৬ ভোট পেয়েছিলেন।
১৯৯৩ সালে বিএনপিতে যোগ দেন স্বপন। ১৯৯৬ সালে ধানের শীষের পরাজয়ের পিছনে স্বপনের হাত ছিল এমন অভিযোগ রয়েছে বিএনপি নেতাদের। ২০০৮ সালে ধানের শীষের বিপক্ষে স্বতন্ত্র প্রার্থী জহিরউদ্দিন স্বপন হরিন মার্কায় নির্বাচন করে ভোট পেয়েছিলেন একহাজারেরও কম।
এই আসনের অন্য দুইজন প্রার্থী হলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মেহেদী হাসান রাসেল সরদার এবং জাকের পার্টির মো. বাদশা মিয়া ।

বরিশাল-১: গোলাপ ফুল ও হাতপাখার প্রার্থী

ধার দেনায় নির্বাচন কেন ?

নির্বাচন কমিশনে প্রার্থীদের জমা দেওয়া নির্বাচনী ব্যয় নির্বাহের জন্য অর্থ প্রাপ্তির সম্ভাব্য উৎসের বিবরণী সূত্রে জানা যায়, বরিশাল-১ আসনের বিএনপির প্রার্থী জহির উদ্দিন স্বপনসহ এই আসনের ৪ প্রার্থী দান ও ধারের টাকায় নির্বাচন করছেন।
এই আসনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ নিজ আয় থেকে ১০ লাখ টাকা এবং তার তিন ছেলের দানে ১৫ লাখ টাকা নির্বাচনী ব্যয় নির্বাহের প্রাপ্ত অর্থ হিসেবে দেখিয়েছেন।
বিএনপির প্রার্থী জহির উদ্দিন স্বপন নির্বাচনী ব্যয় নির্বাহের প্রাপ্ত অর্থ হিসেবে নিজ আয় থেকে আড়াই লাখ টাকা ও তার ভাইয়ের থেকে ধার বাবদ সাড়ে ৬ লাখ টাকা এবং স্ত্রীর কাছ থেকে দানের ১৬ লাখ টাকার কথা উল্লেখ করেছন।এ আসনে বাকী ২ প্রার্থীর মধ্যে ইসলামী আন্দোলনের মো. রাসেল সরদার ব্যবসা থেকে ১ লাখ টাকার পাশাপাশি অনুদান হিসেবে আরও দেড়লাখ টাকা নির্বাচনী ব্যয় নির্বাহের প্রাপ্ত অর্থ হিসেবে দেখিয়েছেন।

২ জন স্বশিক্ষিত

এই আসনরে প্রার্থীদের মধ্যে আওয়ামী লীগ প্রার্থী বর্তমান সরকারের পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন নিরীক্ষা কমিটির আহ্বায়ক (মন্ত্রী মর্যদা) ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ স্বশিক্ষিত। বিএনপির প্রার্থী এম জহিরউদ্দিন স্বপন এমএসএস, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মেহেদী হাসান রাসেল সরদার এইচএসসি এবং জাকের পার্টির মো. বাদশা মিয়া স্বশিক্ষিত।
আয় করেন যেভাবে

ভোটে জয়ী হলে বেকারদের কর্মসংস্থানের আশ্বাস দেন প্রার্থীরা। তাই সম্ভাব্য বিজয়ীরা কীভাবে আয় করেন তা জানার কৌতুহল আছে ভোটারদের। হাসানাত আব্দুল্লাহ একজন ব্যবসায়ী। তিনি কৃষিখাত, বাড়ি-অ্যাপার্টমেন্ট-দোকান ও অন্যান্য ভাড়া ও ব্যবসা থেকে তার বছরে আয় ২ কোটি ৪৮ লাখ ৫৮ হাজার ১৩৭ টাকা। অস্থাবর সম্পত্তির মধ্যে ৩ কোটি ৭৬ লাখ ৫১ হাজার ২২২ টাকার সম্পত্তি ও তার স্ত্রীর নামে ৩ কোটি ২৯ লাখ ৮৬ হাজার ৫৮৪ টাকার সম্পত্তি রয়েছে। স্থাবর সম্পত্তির মধ্যে তার ২ কোটি ৭২ লাখ ৩৬ হাজার ৭৪৮ টাকার ও তার স্ত্রীর ৩০ হাজার টাকার সম্পত্তি রয়েছে। উত্তরাধিকার সূত্রে প্রাপ্ত যৌথ মালিকানার দু’টি পুরনো বাড়ির একাংশ রয়েছে। এর আনুমানিক মোট মূল্য ৫ লাখ টাকা হবে।
বিএনপির জহির উদ্দিন স্বপন পেশায় ব্যবসায়ী হয়ে বছরে আয় দেখিয়েছেন ১৪ লাখ ৩০ হাজার টাকা। স্থাবর-অস্থাবর মিলিয়ে প্রায় ৪ কোটি টাকার সম্পদ রয়েছে তার। স্বপন নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের হলফনামায় ৬ লাখ ৭৬ হাজার ৭০ টাকা বাৎসরিক আয় হিসেবে দেখিয়েছিলেন যা ১০ বছরের মাথায় দ্বিগুণ হয়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ লাখ ৩০ হাজার টাকা।

একনজরে: বরিশাল-১

By |২০১৮-১২-৩০T০০:১১:১৩+০৬:০০শনিবার, ডিসেম্বর ২৯, ২০১৮ ১০:২৩ অপরাহ্ণ|